আঞ্চলিক অর্থনৈতিক জোট

 

আঞ্চলিক অর্থনৈতিক জোট

 

আসিয়ান – ASEAN

 

ASEAN: Association of South East Asian Nation.

দক্ষিণ পূর্ব এশীয় জাতিসমূহের সংস্থা

Establishment: 8 August, 1967.

প্রতিষ্ঠকাল   : ৮ আগস্ট, ১৯৬৭.

Headquarters: Jakarta, Indonesia.

সদর দপ্তর: জাকার্তা, ইন্দোনেশিয়া

Membership: 10 Countries. (Indonesia, Malaysia, Thailand, Singapore, Brunei, Vietnam, Philippines, Laos, Cambodia, Myanmar)

2 Observers Countries: Papua New Guinea, East Timor

সদস্যপদ  : ১০ টি। (ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, ব্রুনাই, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন, লাওস, কম্বোডিয়া, মায়ানমার।

উদ্দেশ্য: ১. দক্ষিন পূর্ব এশিয়াকে কমিউনিস্ট প্রভাবের বাহিরে রাখা।

      ২. আসিয়ানভূক্ত দেশগুলোর মধ্যকার বহুপাক্ষিক এবং দ্বিপাক্ষিক দ্বন্দ্ব-সংঘাতের নিরসন করা। এছাড়াও সদস্যদেশগুলোর অর্থনৈতিক জোট হিসাবে ভূমিকা পালনের চেষ্টা। অন্যান্য দেশ বিশেষ করে আমেরিকার সাথে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিকশিত করে উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন।

শীর্ষ সম্মেলন: তিন বছর পরপর আসিয়ানের শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সর্বশের্ষ ৩৪ তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় থাইল্যান্ডের রাঝধানী ব্যাংককে ২০-২৩ জুন, ২০১৯।

মহাসচিব : থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান-ওচা।

বাণিজ্য চুক্তি: ASEAN দেশগুলি AFTA বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর করে ২০০৩ সালে।

  • Asean Regional Forum (ARF) গঠিত হয় ১৯৯৪ সালে। সদর দপ্তর জাকার্তায়। সদস্য ২৭টি।
  • প্রতিযোগিতামূলক অর্থনৈতিক দিক দিয়ে আসিয়ান- এ শীর্ষ দেশ সিঙ্গাপুর।

 

 

Asean Regional Forum (ARF)

আসিয়ান আঞ্চলিক ফোরাম

 

Establishment: 25 July, 1994.

প্রতিষ্ঠfকাল    :  ২৫ জুলাই, ১৯৯৪

Membership: 27 Countries. (Bangladesh, Indonesia, Malaysia, Thailand, Singapore, Brunei, Vietnam, Philippines, Laos, Cambodia, Myanmar, Canada, China, Japan, North Korea, New Zealand, Russia, East Timor, Sri Lanka, India, Australia, South Koea, Mongolia, Papua New Guinea, USA, Pakistan, EU.

সদস্যপদ: ২৭ টি। (বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, ব্রুনাই, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন, লাওস, কম্বোডিয়া, মায়ানমার, পূর্ব তিমুর, পাপুয়া নিউগিনি, কানাডা, চায়না, জাপান, উত্তর কোরিয়া, দক্ষিন কোরিয়া, নিউজিল্যান্ড, রাশিয়া, শ্রীলঙ্কা, ভারত, পাকিস্থান, অস্ট্রেলিয়া, মঙ্গোলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন।)

 

SAARC

 

SAARC: South Asian Association for Regional Co-operation.

পূর্ণরূপ: দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা।

 

বাংলাদেশ সার্ক ধারণার উদ্ভাবক। বাংলাদেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ১৯৭৭ সালে বাংলাদেশের নিকটবর্তী দেশসমূহ নিয়ে একটি সহযোগিতা সংসন্থা গঠনের চিন্তা করেন। এই লক্ষ্যে ১৯৮০ সালের নভেম্বরে ঢাকায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতার প্রস্তাব সম্বলিত একটি সুপারিশ প্রণয়ণ করেন।১৯৮১ সালের ২১ এপ্রিল বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্থান, নেপাল, ভুটান, শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপ – এ সাতটি দেশের পররাষ্ট্র সচীব পর্যায়ে একটি আনুষ্ঠানিক বৈঠকে শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে অনুষ্ঠিত হয়। কলম্বো বৈঠকে আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা গঠনে ঐক্যমত্য প্রকাশ করা হয় এবং সহযোগিতার ক্ষেত্রসমূহ চিহ্নিত করা হয়।

Establishment: 8 December, 1985.

প্রতিষ্ঠকাল    : ৮ ডিসেম্বর, ১৯৮৫।

১৯৮৫ সালের ৮ ডিসেম্বর ঢাকায় সার্ক সনদ স্বাক্ষরিত হয়। সার্ক সনদে ৮ টি লক্ষ্য স্থির করা হয়। এভাবে সার্কের জন্ম হয়। সার্কের প্রথম মহাসচিব নিযুক্ত হন বাংলাদেশের আবুল আহসান।

Membership: 8 Countries. (Bangladesh, Sri Lanka, India, Pakistan, Bhutan, Maldives, Afghanistan, Nepal.)

সদস্যপদ: ৮ টি। (বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, ভারত, পাকিস্থান, ভুটান, নেপাল, মালদ্বীপ ও আফগানিস্থান।)

Observers: 9 countries. (China, Japan, USA, South Korea, Iran, Morisas, Myanmar, Australia and EU.)

পর্যক্ষেক দেশ: ৯টি।  (চীন, যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ইরান, দক্ষিণ কোরিয়া, মরিশাস, মায়ানমার, অস্ট্রেলিয়া এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

Secretariat: Kathmandu, Nepal

সচিবালয়: কাঠমান্ডু, নেপাল।

সার্কের প্রথম সম্মেলন হয় ১৯৮৫ সালে ঢাকাতে। সার্কের সর্বশেষ সম্মেলন হয় ২০১৪ সালে নেপালের কাঠমান্ডুতে আর পরবর্তী সম্মেলন (১৯ তম) পাকিস্থানে হওয়ার কথা।কিন্তু ভারত-পাকিস্থানের বিরোধে এখন পর্যন্ত এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়নি। ফলে বর্তমানে সার্ক অনেকটা স্থবির হয়ে আছে। সার্কের বর্তমান মহাসচিব আমজাদ হোসেন  সিয়াল।

 

মূলনীতি: সার্কের যে কোন সিদ্বান্ত সর্বসম্মত হবে। দ্বিপক্ষীয় বিরোধ সংক্রান্ত সমস্যাগুলো এ সংস্থার সভায় তোলা যাবে না।

সার্কের সহযোগিতার ক্ষেত্র ১৩টি।

  • সার্কভুক্ত নবীনতম সদস্য আফগানিস্থান (২০০৭)। সার্কভুক্ত দেশসমূহের মধ্যে আফগানিস্থানের শিক্ষার হার এবং মাথাপিছু আয় সবচেয়ে কম।

     সার্কভুক্ত দেশসমূহের মধ্যে মালদ্বীপের শিক্ষার হার এবং মাথাপিছু আয়

     সবচেয়ে বেশি। মালদ্বীপের সেনাবাহিনীর নাম MNDF.

  • সার্ক বিশ্ববিদ্যালয় ভারতের নয়াদিল্লিতে। সার্কভুক্ত দেশসমূহের মধ্যে আয়তন ও জনসংখ্যায় ভারত সবচেয়ে বড়।
  • ২০১৬ সালে সার্কের সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি পায় বগুড়ার মহাস্থানগর।

 

SAPTA & SAFTA

 

SAPTA : South Asian Preferential Trade Agreement.

সার্কভুক্ত দেশসমূহের বাণিজ্য ঘাটতি, উৎপাদিত পণ্য রপ্তানি ক্ষেত্রে বৈষম্য নিরসন ওশুল্ক সুবিধার জন্য যে চুক্তিতে একমত হয়েছে তার নাম সাপটা (SAPTA)।

Signed: 11 April, 1993.

স্বাক্ষর: ১১ এপ্রিল, ১৯৯৩।

Implementation: 7 December, 1995.

কার্যকর: ৭ ডিসেম্বর, ১৯৯৫।

SAFTA: South Asian Free Trade Area.

Signed: 6 January, 2004.

স্বাক্ষর: ৬ জানুয়ারি, ২০০৪.

Implementation: 1 January, 2006.

কার্যকর: ১ জানুয়ারি, ২০০৬

 

সার্কের আঞ্চলিক কেন্দ্র

 

বর্তমানে সার্কের আঞ্চলিক কেন্দ্র ৫টি। খরচ কমাতে ২০১৪ সালের নভেম্বরে সার্কের ৪৯ তম প্রোগ্রামিং কমিটির বৈঠকে সার্কের ১১টি কেন্দ্রের ৬টি কেন্দ্র বন্ধের সুপারিশ করা হলে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে সম্পূর্ণভাবে ৬টি কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হয়।

 

সার্কের বর্তমান ৫টি আঞ্চলিক কেন্দ্র

 

কেন্দ্রের নাম

সদর দপ্তর
সার্ক কৃষি কেন্দ্র ঢাকা, বাংলাদেশ
সার্ক কৃষি ও এইডস কেন্দ্র কাঠমান্ডু, নেপাল
সার্ক জ্বালানি ও পরিবেশ কেন্দ্র ইসলামাবাদ, পাকিস্থান
সার্ক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কেন্দ্র নয়াদিল্লী, ভারত
সার্ক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র কলম্বো, শ্রীলংকা

 

 

BIMSTEC

 

BIMSTEC: Bay of Bengal Initiative for Multi-Sectoral Technical and Economic Cooperation.

Headquarters: Dhaka, Bangladesh.

সদর দপ্তর: ঢাকা, বাংলাদেশ

Membership: 7 Countries. (Bangladesh, Sri Lanka, India,  Bhutan, Thailand, Myanmar, Nepal.)

সদস্যপদ: ৭ টি। (বাংলাদেশ,  শ্রীলঙ্কা, ভারত, থাইল্যান্ড, ভুটান, নেপাল, মায়ানমার।)

Establishment: 6 June, 1997.

প্রতিষ্ঠfকাল    : ৬ জুন, ১৯৯৭।

১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলংকা এবং থাইল্যান্ডকে নিয়ে গঠিত হয় – Bangladesh-India – Thailand – Sri Lanka Economic Cooperation. (BISTEC)

পরবর্তীতে ১৯৯৭ সালে মায়ানমার যোগ দিলে নাম হয় –

Bangladesh-India – Myanmar – Thailand – Sri Lanka Economic Cooperation. (BIMSTEC)

২০০৪ সালের ৩১ জুলাই থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে বিমসটেকের প্রথম শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় এবং নতুন নামকরণ করা হয় –

Bay of Bengal Initiative for Multi-Sectoral Technical and Economic Co-operation.

 

BENELUX

 

BENELUX: Belgium, Netherlands and Luxemburg Economic Co-operation.

Establishment

Benelux Customs union

Treaty Signed:  5 September 1944.

In Effect: 1 January 1948.

 

বেনেলাক্স কাস্টমস ইউনিয়ন

 

স্বাক্ষর: ৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৪৪।

কার্যকর: ১ জানুয়ারি, ১৯৪৮।

Benelux Economics union

 

Treaty Signed:  3 February, 1958.

In Effect: 1960.

 

বেনেলাক্স ইকোনোমিক ইউনিয়ন

 

স্বাক্ষর: ৩ ফেব্রুয়ারি, ১৯৫৮।

কার্যকর: ১৯৬০।

 

Headquarters: Brussels, Belgium.

সদর দপ্তর: ব্রাসেলস, বেলজিয়াম

 

Membership: 3 Countries. (Belgium, Netherlands, Luxembourg)

সদস্যপদ: ৩ টি। (বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস, লুক্সেমবার্গ।)

 

 

BCIM

BCIM : Bangladesh- China- India-Myanmar Forum for Regional Cooperation.

পরিচিতি: অর্থনৈতিক করিডোর।

উদ্দেশ্য: অধিকতর পারস্পরিক বাণিজ্য এবং বিনিয়োগের সহযোগিতার জন্য একটি আঞ্চলিক সংগঠন।

 

Membership: 4 Countries. (Bangladesh, China, India, Myanmar)

সদস্যপদ: ৪টি দেশ। (বাংলাদেশ, চীন, ভারত, মায়ানমার)

 

 

MERCOSUR

পরিচিতি: দক্ষিণ আমেরিকার বাণিজ্য ব্লক।

Establishment

Signed on: 26 March, 1991.

Entered into effect: 16 December, 1994.

 

প্রতিষ্ঠাকাল

স্বাক্ষরিত হয়: ২৬ মার্চ, ১৯৯১.

কার্যকর হয়: ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৯৪।

 

Membership: 4 Countries. (Brazil, Argentina, Paraguay, Uruguay)

সদস্যপদ : ৪টি দেশ। (ব্রাজিল, আজের্ন্টিনা, প্যারাগুয়ে, উরুগুয়ে)

 

Associated Members: 7 Countries. (Chile, Bolivia, Colombia, Ecuador, Peru, Guyana, Suriname)

সহযোগী দেশ: ৭টি। (চিলি, বলিভিয়া, কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, পেরু, সুরিনাম, গায়ানা)

Observer: 2 Countries (Mexico, New Zealand)

Headquarters: Montevideo, Uruguay.

পর্যবেক্ষক : ২টি দেশ। (মেক্সিকো, নিউজিল্যান্ড)

সদরদপ্তর: মন্টিভিডিও, উরুগুয়ে।