ই-কমার্স

ই-কমার্স

ই-কমার্স বা ইলেকট্রনিক কমার্স একটি আধুনিক ব্যবসা পদ্ধতি। আধুনিক ডেটা প্রসেসিং এবং কম্পিউটার নেটওয়ার্ক বিশেষত  ইন্টারনেটের মাধ্যমে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পণ্য বা সেবা মার্কেটিং, বিক্রয়, ডেলিভারী, ব্যবসা সংক্রান্ত লেনদেন ইত্যাদি করাই হচ্ছে ই-কমার্স।

ই-কমার্সের প্রকারভেদ

পণ্য লেনদেনের প্রকৃতি ও ধরন অনুসারে ই-কমার্সকে সাধারণত চারটি ভাগে ভাগ করা যায়। যথা-

১. ব্যবসা থেকে ভোক্তা (Business to Consumer-B2C)

২. ব্যবসা থেকে ব্যবসা (Business to Business -B2B)

৩. ভোক্তা থেকে ভোক্তা (Consumer to Consumer – C2C)

৪. ভোক্তা থেকে ব্যবসা (Consumer to Business – C2B)

ই-কমার্সের জন্য যে কোনো দেশে বসে অন্য দেশের পণ্য বা সেবা কেনা বেচা করা সম্ভব। EDI- Electronic Data Interchange হওয়ায় টাকা হারানোর ভয় থাকে না। সপ্তাহে সাতদিন এবং প্রতিদিনের ২৪ ঘন্টাই কেনা বেচা করা সম্ভব। ই-কমার্সের ফলে কেনা বেচার সময় কম লাগে এবং পণ্য বা সেবা দ্রুত কাস্টমার/ভোক্ত/ ক্রেতার দোরগোরায় পোঁছে যায়।ই-টেকনোলজির বড় একটি বৈশিষ্ট্য হলো পেমেন্ট সিস্টেম। এই পেমেন্ট  সিস্টেম ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড, ইলেকট্রনিক চেক, ফোন বা আইভিপি (IVP) গ্রহণ করে যা সাধারণ পে-সিস্টেমের চেয়ে অনেক বৈচিত্র্যময়, সুবিধাজনক এবং নিরাপদ।

বর্তমানে বাংলাদেশে ইন্টারনেটে বই, সিডি প্রভতি বিক্রি হচ্ছে।ই-কমার্সে নতুন জোয়ার আসছে বাংলাদেশে।এর ফলে নতুন নতুন কর্মক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। তবে এক্ষেত্রে বেশি ঢাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ।বর্তমানে ব্যাংকে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে লেনদেনের জন্য ই-কমার্স ব্যপকভাবে  ব্যবহার করা হচ্ছে।

ই-কমার্স এবং ই-বিজনেসের মধ্যে পার্থক্য

ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে বানিজ্যিক লেনদেন করাকে ই-কমার্স বলা হয়। ডিজিটাল প্রযুক্তি নির্ভর বাণিজ্যিক  লেনদেন বলতে প্রতিষ্ঠান ও অন্য প্রতিষ্ঠানের মধ্যে, কোন প্রতিষ্ঠান ও কোন ব্যক্তির মধ্যে, কিংবা কোন ব্যক্তি ও অন্য ব্যক্তির মধ্যে ডিজিটাল টেকনোলজির মধ্যস্থতায় পণ্য ও সেবার বিপরীতে অর্থ লেনদেন করাকে বুঝায়। ই-বিজনেস বলতে কোনো প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব নিয়ন্ত্রণাধীন আধুনিক ইনফরমেশন সিস্টেমসহ ডিজিটাল প্রযুক্তি নির্ভর অভ্যন্তরীণ সকল প্রকার লেনদেন এবং প্রসেসকে বুঝায়। ই-বিজনেস প্রতিষ্ঠানের সীমানার বাহিরে কোন প্রকার বাণিজ্যিক লেনদেন বা অর্থ  বিনিময়ের সাথে সংশ্লিষ্ট নয়। ই-কমার্স ইন্টারনেটভিত্তিক  সকল প্রকার বানিজ্যিক লেনদেনের সাথে জড়িত এবং ই-বিজনেস প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রণাধীন সকল প্রকার ডিজিটাল প্রযুক্তি নির্ভর লেনদেনের সাথে জড়িত।

এম-কমার্স (M-Commerce= Mobile Commerce)

মোবাইল ফোন বা সেলফোনের মাধ্যমে ওয়ারলেসে নেটওয়াকে (ইন্টারনেটে) প্রবেশ করে ই-বিজনেস করাকে মোবাইল কমার্স বা এম-কমার্স বলা হয়।

 

কেনাবেচার জনপ্রিয় সাইট

Ekhanei.com

কেনাবেচার একটি জনপ্রিয় সাইট এটি। এর মালিকানা গ্রামীণফোন। বাংলাদেশে ই-কমার্সের একটি পরিচিত নাম। ২০০৬ সালে এটি চালু করা হয়।

Olx.com

কেনাবেচার আরেকটি জনপ্রিয় সাইট এটি। ১০৬ টিরও বেশি দেশে এর উপস্থিতি য়েছে।  

Amazon.com

এটি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি কম্পানি। ওয়াশিংটনের সিয়াটেলে এর সদর দপ্তর।বর্তমান আমেরিকার সেরা খুচরা বিক্রেতা। বর্তমান বিশ্বের সেরা ধনী জেফ বেজোস এর প্রতিষ্ঠাতা।

Bikroy.com

এটি বাংলাদেশ অপারেটিং একটি শ্রেণীবদ্ধ বিজ্ঞাপনের ওয়েবসাইট। প্রায় সকল প্রকার বিজ্ঞাপন এতে দেওয়া যায়।এটি ২০১২ সালের জুনে চালু হয়।এটি একটি বিশ্বাসযোগ্য সাইট হিসাবে অনলাইনে ক্রেতা বিক্রেতার কাছে সুনাম অর্জন করেছে।