উল্কা

রাতের মেঘমুক্ত আকাশে অনেকসময় মনে হয় যেন নক্ষত্র ছুটে যাচ্ছে বা মনে হয় কোনো নক্ষত্র যেন এইমাত্র খসে পড়ল। এই ঘটনাকে নক্ষত্র পতন বা তারা খসা বলে।মহাশূন্যে অজস্র জড় পিন্ড ভেসে বেড়ায়। এই জড়পিন্ডগুলো অভির্কষ বলের আকর্ষণে প্রচন্ড গতিতে ( সেকেন্ডে প্রায় ৩ কিঃমি) পৃথিবীর দিকে ছুটে আসে। বায়ুর সংস্পর্শে এসে বায়ুর সঙ্গে ঘর্ষনের ফলে এরা জ্বলে উঠে। এগুলোকে উল্কা বা Meteor বলে।বেশির ভাগ উল্কাপিন্ডই আকারে বেশ ক্ষুদ্র।

The clouds in the night sky sometimes seem like the star is running out, or it seems that some star has just disappeared. This phenomenon is known as a star fall or a star. The crowd floats in the crowd. These mass movements rush to the earth at a very fast pace (about 3km in seconds) to the attraction of the ball. They come in contact with wind and friction with the wind. These are called  Meteor. In the form of a meteorite, the metabolism is quite small.

সব উল্কার বেশীরভাগই গ্রহানু বা ধূমকেতুর অংশবিশেষ। বাকী অংশ মহাজাগতিক বস্তুর সংঘর্ষের ফলে সৃষ্ট ধ্বংসাবশেষ। যখন কোন উল্কা পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে প্রবেশ করে তখন এর গতিবেগ প্রতি সেকেন্ডে ২০ কিমি বৃদ্ধিপ্রাপ্ত হয় (৭২,০০০ কিমি/ঘন্টা; ৪৫,০০০ মাইল/ঘন্টা।)। এসময়ে এ্যারোডাইনামিক্স তাপের কারনে উজ্জ্বল আলোক ছটার সৃষ্টি হয়। এই বাহ্যমূর্তীর কারনে একে তারা খসা (Shooting Star) বলে। কিছু কিছু উল্কা একই উৎস হতে উৎপন্ন হয়ে বিভিন্ন ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে ভেঙে প্রজ্জ্বলিত হয় যাকে উল্কা বৃষ্টি বলা হয়।

All meteorites are mostly part of the planet or comet. The rest is the ruins created by the collision of cosmic objects. When a meteor enters the Earth’s atmosphere, its magnitude increases by 20 km per second (7,000,000 km / hr; 45,000 miles / hour). At the same time, due to the aerodynamics heat, bright light is formed. Because of this image it is called Shooting Star. Some meteors are produced from the same source and are shattered by various small sections called meteor rains.