গিরিশচন্দ্র সেন

গিরিশচন্দ্র সেন (ভাই)

গিরিশচন্দ্র সেন ১৮৩৫ সালে নরসিংদী জেলার পাঁচদোন গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। তিনি কেশবচন্দ্র সেন ও বিজয়কৃষ্ণ গোস্বামীর প্রভাবে ১৮৭১ সালে ব্রাহ্মমতে দীক্ষিত হন।তিনি বাংলা, সংস্কৃত, পারসি, আরবি ভাষায় সুপন্ডিত ছিলেন। তিনি সর্বপ্রথম কুরআন শরীফ বঙ্গানুবাদ করেন। তিনি ১৯১০ সালে ১৫ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন।

 

অনুবাদ গ্রন্থ

তাপসমালা: ফারসি ভাষার মওলানা শেখ ফরিদুদ্দিন আত্তারের ‘তাজকেরাতুল আওলিয়া’ অবলম্বনে রচিত।৯৬ জন ওলী-আল্লা’র জীবন কাহিনী এতে আলোচিত হয়েছে।বাংলা সাহিত্যে সুফী-দরবেশদের জীবন কাহিনী সংক্রান্ত প্রথম গ্রন্থ।

অন্যান্য গ্রন্থ- ‘মিশকাত শরিফে’র অর্ধেক অনুবাদ করেন ‘হাদিস পূর্ব বিভাগ’ নামে, শেখ ফরিদুদ্দিন আত্তারের ‘মানতেকুহতায়েব’ এবং মওলানা জালালুদ্দিন রুমির ‘মসনবি শরিফ’ পারসি গ্রন্থ থেকে উপাদান নিয়ে লেখেন ‘তত্ত্বরত্নমালা’।

মৌলিক গ্রন্থ: তাঁর মৌলিক গ্রন্থটি ‘মহাপুরুষচরিত’।