পৃথিবীর পরিচিতি

 

পৃথিবী পরিচিতি

পৃথিবীর পরিধি প্রায় ৩,৪০,২৩৪ কি.মি. বা ২৫,০০০ মাইল। পৃথিবীর ব্যাস প্রায় ১২,৭৭৬ কি.মি. এবং ব্যাসার্ধ প্রায় ৬,৪৩৬ কি.মি.।পৃথিবী সূর্যকে প্রদক্ষিন করতে সময় লাগে প্রায় ৩৬৫ দিন ৫ ঘন্টা ৪৮ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড। পৃথিবী হতে সূর্যের দূরত্ব প্রায় ১৪,৯৫,০০০ কি.মি.।

পৃথিবীতে মহাদেশ আছে ৭টি। এগুলো হলো – এশিয়া, আফ্রিকা, ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা, দক্ষিন আমেরিকা, এন্টার্কটিকা ও ওশেনিয়া (অস্ট্রেলিয়া)।আয়তন ও জনসংখ্যায় বৃহত্তম মহাদেশ এশিয়া এবং । আয়তন ও জনসংখ্যায় ক্ষুদ্রতম মহাদেশ যথাক্রমে অস্ট্রেলিয়া ও এন্টার্কটিকা। আয়তনে বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়া এবং জনসংখ্যায় বড় দেশ চীন। আয়তন ও জনসংখ্যায় ক্ষুদ্রতম দেশ ভ্যাটিকান সিটি।পৃথিবীতে স্বাধীন দেশের সংখ্যা ১৯৫ টি এবং সর্বশেষ স্বাধীন দেশ দক্ষিন সুদান। জাতিসংঘ কর্তৃক স্বাধীন দেশের সংখ্যা ১৯৩টি (ভ্যাটিকান সিটি ও কসাভো স্বাধীন দেশ হলেও জাতিসংঘের সদস্য নয়।)  পৃথিবীর সর্ব উত্তরের নগরী নরওয়ের হ্যামারফেস্ট এবং সর্ব দক্ষিনের নগরী চিলির পুয়ের্তো উইলিয়াম। পৃথিবীর শীতলতম স্থান রিজ-এ (এন্টার্কটিকা) বা সাইবেরিয়ার ভারখয়ানস্ক (রাশিয়া)।আর উষ্ণতম স্থান লিবিয়ার আজিজিয়া।এশিয়া তথা বিশ্বের বৃহত্তম অরণ্য রাশিয়ার তৈগা অরণ্য।পৃথিবীর বৃহত্তম রেলপথ সাইবেরিয়ার ট্রান্স রেলপথ। পৃথিবীর সরু দেশ চিলি।

রাশিয়া ও তুরস্ক দুটি দেশ এশিয়া ও ইউরোপে অবস্থিত এজন্য এই দুই দেশকে ইউরেশিয়ার দেশ বলা হয়। তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরটি এশিয়া ও ইউরোপ উভয় মহাদেশে পড়েছে।সুইজারল্যান্ডকে নিরপেক্ষ দেশ বলা হয়।পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি সীমান্তবর্তী দেশ চীন।

পৃথিবীতে মোট ৫টি মহাসাগর রয়েছে। এগুলো হলো – প্রশান্ত, আটলান্টিক, ভারত, উত্তর মহাসাগর ও দক্ষিন মহাসাগর।বৃহত্তম মহাসাগর প্রশান্ত এবং ক্ষুদ্রতম মহাসাগর আর্কটিক বা উত্তর মহাসাগর। পৃথিবীর গভীরতম স্থান প্রশান্ত মহাসাগরের মারিয়ানা ট্রান্স।কানাডা যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ও কলম্বিয়া প্রশান্ত ও আটলান্টিক উভয় মহাসাগরের তীরে অবস্থিত।এছাড়া একমাত্র দক্ষিণ আফ্রিকা ভারত ও আটলান্টিক উভয় মহাসাগরের তীরে অবস্থিত। পৃথিবী বৃহত্তম সাগর দক্ষিন চীন সাগর, গভীরতম সাগর ক্যারাবিয়ান সাগর এবং বৃহত্তম উপসাগর মেক্সিকো উপসাগর। পৃথিবীর বৃহত্তম নদী আমাজন নদী।