বাজেট

জাতীয় বাজেট ২০১৯-২

 

  • ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট ৪৯ তম। বাংলাদেশের অর্থবছর মোট ৪৯টি।
  • একই সাথে দুই বছরের বাজেট উত্থাপিত হয় ১৯৭২ সালে ( ১৯৭২-৭৩ ও ১৯৭৩-৭৪ অর্থবছরের বাজেট পেশ করা হয়।)
  • প্রথমবারের মত বাজেট উত্থাপন করে প্রধানমন্ত্রী মাননীয় শেখ হাসিনা (২০১৯-২০ বাজেট)
  • অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের ১ম বাজেট (বর্তমান সরকারের টানা ১১তম বাজেট)
  • বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল
  • ২০১৯-২০ বাজেট উত্থাপিত হয় ১৩ জুন , ২০১৯, রোজ বৃহস্পতিবার
  • ২০১৯-২০ বাজেটের স্লোগান -“সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ, সময় এখন আমাদের, সময় এখ বাংলাদেশের।”
  • ২০১৯-২০ বাজেট পাশ হয় ১৩ জুন , ২০১৯
  • ২০১৯-২০ বাজেট কার্যকর হয় ১ জুলাই , ২০১৯
  • বাজেটের অর্থবছর -১ জুলাই থেকে ৩০ জুন।
  • মোট বাজেট – ৫,২৩,১৯০ কোটি টাকা।
  • সামগ্রিক আয় – ৩,৮১,৯৭৮ কোটি টাকা।
  • সামগ্রিক ঘাটতি (অনুদানসহ) – ১,৪১,২১২ কোটি টাকা।
  • বৈদেশিক অনুদান – ৪,১৬৮ কোটি টাকা
  • বৈদেশিক ঋণ থেকে আসবে – ৬৩,৮৪৮ কোটি টাকা
  • মোট রাজস্ব আয়- ৩,৭৭,৮১০ কোটি টাকা।
  • বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি – ২,০২,৭২১ কোটি টাকা।
  • জিডিপির হার – ৮.২%
  • মুদ্রাস্ফীতির লক্ষ্য – ৫.৫%
  • করমুক্ত আয়ের সীমা – ২,৫০,০০০ টাকা
  • ভ্যাটের স্তর – ৪টি [৫%, ৭.৫%, ১০% ও ১৫%]
  • ভ্যাট নাই – ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত লেনদেনে।
  • নতুন ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক আইন কার্যকর হয়- ১ জুলাই , ২০১৯ হতে।
  • মাথাপিছু বরাদ্দ -৩২,৩৫৫ টাকা।
  • মাথাপিছু আয় (প্রক্ষেপন) -২১৭৩ ডলার
  • মাথাপিছু ঘাটতি – ৮৯৯০ টাকা
  • মুক্তিযুদ্ধ ভাতা – ১২,০০০ টাকা
  • প্রবাসী আয়ে প্রণোদনা -২%
  • তৈরি পোশাক খাতে প্রণোদনা – ২,৮২৫ কোটি টাকা
  • কৃষিপণ্য রপ্তানিতে প্রণোদনা – ২০ শতাংশ
  • বিনিয়োগ – জিডিপির ৩২.৮ শতাংশ
  • ব্যয়ের খাত:

 

১. জনপ্রশাসন খাত (সর্বোচ্চ বরাদ্দ) – ৯৬,৪৭০ কোটি টাকা (মোট বাজেটের ১৮.৫%)

২. শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাত – ৭৯,৪৮৬ কোটি টাকা (মোট বাজেটের ১৫.২%)

৩. পরিবহন ও যোগাযোগ খাত – ৬৪,৮২০ কোটি টাকা (মোট বাজেটের ১২.৪%)

 

  • আয়ের খাত:

 

১. মূল্য সংযোজন কর (VAT) – ১,২৩,০৬৭ কোটি টাকা (মোট বাজেটের ২৩.৫%)

২. আয় ও মুনাফা খাত থেকে আয় – ১,১৩,৯১২ কোটি টাকা (মোট বাজেটের ২১.৮%)

৩. সম্পূরক শুল্ক – ৪৮,১৫৩ কোটি টাকা (মোট বাজেটের ৯.২%)

 

 

 

 

বাজেট ২০১৮

¤ তম: ৪৭ তম বাজেট (একটি অন্তবর্তীকালীন বাজেটসহ)

¤ বাজেট ঘোষণা/উপস্থাপন করা হয়: ০৭ জুন, ২০১৮ 

¤ বাজেট পাশ : ২৮ জুন, ২০১৮।

¤ বাজেটের আকার : ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা।(জিডিপির ১৮.৭১%)

¤ মোট জিডিপি-২৫,৩৭,৮৪৯ কোটি টাকা

¤সামগ্রিক আয় (রাজস্ব ও অনুদানসহ) ৩,৪৩,৩৩১ কোটি টাকা।(জিডিপির ১৩.৫৩%, বাজেটের ৭৩.৯০%)

¤বাজেটে রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে-৩,৩৯,২৮০ কোটি টাকা।(জিডিপির ১৩.৩৭%, বাজেটের ৭৩.০৩%)
¤ বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (ADP) বরাদ্ধ : ১লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকা।

¤সামগ্রিক ঘাটতি (অনুদান ছাড়া) – ১,২৫,২৯৩ কোটি টাকা।(জিডিপির ৪.৯৪% ও বাজেটের ২৬.৯৭%)

¤সামগ্রিক ঘাটতি (অনুদানসহ) – ১,২১,২৪২ কোটি টাকা।(জিডিপির ২.৮১% ও বাজেটের ১৫.৩৪%)

¤বৈদেশিক অনুদান-৪,০৫১ কোটি টাকা।

¤ জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ধরা হয়েছে : ৭.৮০%

¤ মূল্যস্ফীতির হার ধরা হয়েছে : ৫.৬%

¤ সবচেয়ে বেশি বাজেট বরাদ্দ জনপ্রশাসন : ৮৩, ৫০৯ কোটি

¤ দ্বিতীয় সবচেয়ে বেশি বাজেট বরাদ্দ শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে = ৬৭,৯৪৪ কোটি

¤ করমুক্ত আয়সীমা:
*সাধারণ সীমা (ব্যক্তি শ্রেণি) : ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা
*নারী ও ৬৫ ঊর্ধ্ব করদাতা : ৩ লক্ষ টাকা
*প্রতিবন্ধী ব্যক্তি : ৪ লক্ষ টাকা
*ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগ এর কর অব্যাহতির সীমা : বার্ষিক ৩৬ লাখ টাকা

নোট :
*সংবিধানে বাজেটকে বলা হয়-Annual financial statement
[বাংলায় বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি -অনুচ্ছেদ : 87]

*আধুনিক বাজেটের প্রবর্তক স্যার জেমস উইলসন।

*১ম বাজেট বাংলাদেশে দেন-তাজ উদ্দিন আহমেদ(৩০ জুন,১৯৭২)

* উপমহাদেশের প্রথম বাজেট ঘোষনা কার হয় ১৮৬১ সালে (লড ক্যানিং)

* বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বাজেট ঘোষনা করেন ১২ বার যথাক্রমে সাইফুর রহমান ও আবুল মাল আবদুল মুহিত।

* বাংলাদেশে বাজেটের ধরন ঘাটতি বাজেট।

* PPP এর পূর্ণরূপ Public – Private Partnership

*ভ্যাট চালু হয়-১৯৯১ সালের জুলাই মাসে

*NBR এর রাজস্ব উৎস হলো আয়কর এবং ভ্যাট।

*বাজেট প্রধানত দুইভাগে ভাগ করা যায়
ক)সুষম বাজেট
খ)অসম বাজেট

*অসম বাজেট দুই প্রকার
ক) Surplus Budget
খ)Deficit Budget

 

এটি হচ্ছে-

a) দেশের ৪৭তম
b) আওয়ামী লীগ সরকারের ১৯ তম
c) অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ১২ তম আর টানা দশম বাজেট।

২| ‌ঘোষণা ক‌রে: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।