যুক্তরাষ্ট্র

United States of America

রাষ্ট্রীয় নাম:  ইউনাইটেড স্টেইটস অব আমেরিকা

State Name: United States of America

রাজনৈতিক পদ্ধিতি:  গনতন্ত্র

Political profile: Democracy

সরকার পদ্ধতি:  রাষ্ট্রপতি শাসিত

Government Procedure: The President ruled

রাজধানীঃ ওয়াশিংটন ডিসি।

Capital: Washington DC

আয়তন: ৯৮,২৬,৬৭৫ বর্গ কিঃ মিঃ

Size: 98,26,675 square kilometers

আমেরিকার ইতিহাস

ব্রিটিশ বনিকগন যুক্তরাষ্ট্রের ১৩টি অঙ্গরাজ্যে উপনিবেশ গড়ে তুলেছিল। ১৭৭৩ সালে বৃটিশ পার্লামেন্ট চা আইন পাস হলে এর প্রতিবাদ সরুপ ‘বোস্টন চা পার্টি’ অনুষ্ঠিত হয়। বোস্টন চা পার্টি যুক্তরাষ্টের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস এক মাইল ফলক ।বোস্টন চা পার্টি মানে জাহাজ ভর্তি চা পাতা আটলান্টিক মহাসাগরের ফেলে দেয়ার মধ্য দিয়ে ইউরোপীয় বনিকদের বিরুদ্ধে আমোরিকানদের পতিবাদের ঘটনা। ১৭৭৬ সালের ৪ জুলাই বৃটিশ শাসনাধীন যুক্তরাষ্টের ১৩টি রাজ্যের প্রতিনিধিরা স্বাধীনতা ঘোষনা করে । এজন্য ৪ জুলাই আমেরিকার স্বাধীনতা দিবস । স্বাধীনতা যুদ্ধে ফ্রান্স প্রত্যক্ষভাবে যুক্তরাষ্ট্রকে সাহায্য করে । যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা সংগ্রামের নায়ক এবং বৃটিশদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহে নেতৃত্ব দেন জর্জ ওয়াশিংটন। আমেরিকার স্বাধীনতার ঘোষনাকারী হলেন থমাস জেফারসন।আমেরিকার স্বাধীনতা যুদ্ধে ইংরেজ সৈন্য পরিচালনাকারি সেনাপতি লর্ড কর্নওয়ালিস ও স্যার উইলিয়াম হোয়ে । ১৭৮০ সালে প্রথম ভার্সাই চুক্তির মাধ্যমে ১৭৮৩ সালে যুদ্ধ বিরতি হয় এবং বৃটেন যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা মেনে নেয়।

America’s history

British conglomerate developed colonies in 13 states of the United States. In 1773, the British Parliament tea law was passed and its protest was held as ‘Boston Tea Party’. Boston Tea Party The history of the independence struggle of the United States is one-mile pile. The Boston Tea Party means shipwrecked tea leaf leaves the Atlantic Ocean, the events of American’s paternalism against European merchants. On July 4, 1776, representatives from 13 states of the United Kingdom of British rule declared independence. That’s why the Independence Day of July 4th. In the war of independence, France directly helps the United States. George Washington led the rebellion against the American freedom fighters and the British. Thomas Jefferson proclaims the independence of America. In the war of independence, English army commander Lord Cornwallis and Sir William Howe The war broke out in 1783 by the first Versailles treaty in 1780, and Britain accepted the independence of the United States.

                                                                           সংবিধান   

১৭৮৭ সালে স্বাধীন রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান গৃহীত হয় এবং তা কার্যকর হয় ১৭৮৯ সালে।যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান পৃথিবীর প্রাচীনতম ও ক্ষুদ্রতম লিখিত সংবিধান । এ পর্যন্ত সর্বমোট ২৭ বার যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান সংশোধিত হয়। এর মধ্যে নাগরিক অধিকার সম্পর্কিত প্রথম ১০ সংশোধনীকে ‘Bill of Rights’ বলে।

Constitution

The constitution of the independent state of the United States was adopted in 1787 and it came into effect in 1789. The Constitution of the State is the oldest and smallest written constitution in the world. So far, the Constitution of the United States has been amended 27 times in total. Among these, the first 10 amendments to civil rights are called ‘Bill of Rights’.

অঙ্গরাজ্য

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পতাকায় ১৩টি আড়াআড়ি দাগ (৭টি লাল ও ৬টি সাদা ) ও এক কোনায় নীল ব্যাকগ্রাউন্ডে ৫০টি তারকা রয়েছে। ১৩টি আড়াআড়ি দাগ দিয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ১৩টি  States কে বুঝায় আর ৫০টি তারকা দিয়ে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যকে বুঝানো হয়। বর্তমানে আমেরিকার অঙ্গরাজ্য ৫০টি আর এর পাশাপাশি একটি ফেডারেল জেলা (District of Colombia) আছে । আমেরিকা ১৮০৩ সালে ফ্রান্সের নিকট হতে লু্ইসিয়ানা এবং ১৮৬৭ সালে রাশিয়ার নিকট হতে আলাস্কা ক্রয় করেন । যুক্তরাষ্ট্রের সর্বশেষ অঙ্গরাজ্য হাওয়াই।আয়তনে বৃহত্তম অঙ্গারাজ্য আলাস্কা এবং জনসংখ্যা বৃহত্তম হল ক্যালিফোর্নিয়া। এজন্য ক্যালিফোর্নিয়াতে ইলেকটোরাল ভোট সংখ্যা  বেশি।

The state

There are more than 50 stars in the blue background of the United States flag with 13 cross-stains (7 red and 6 white) and one corner. During the War of Liberation, 13 countries are represented by 13 cross-country strains, and 50 stars represent 50 US states. Currently there are 50 American states and a federal district as well. America purchased Louisiana from France in 1803 and Alaska from Russia in 1867. The United States’s newest state is Hawaii. Alaska is the largest state and the largest population is California. Because of this, there are more electoral votes in California.

                                        নির্বাচন ও পার্লামেন্ট

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ইলেকটোরাল কলেজ কর্তৃক নির্বাচিত হন। সর্বমোট ৫৩৮ জন ইলেকটার থাকেন । প্রেসিডেন্ট র্বিাচিত হতে কমপক্ষে ২৭০টি  ইলেকটোরাল ভোট দরকার। ক্যালিফোর্নিয়াতে ইলেকটোরাল ভোট সংখ্যা ৫৫টি । যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট দুই কক্ষ বিশিষ্ট । উচ্চ কক্ষের নাম সিনেট। সিনেটের সদস্য সংখ্যা ১০০ জন আর নিম্ন কক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টাটিভ যার সদস্য সংখ্যা ৪৩৫। দুই কক্ষ মিলে মোট সদস্য ৫৩৫ এবং এর  সাথে ৩টি সংরক্ষিত আসনসহ ৫৩৮ জন সদস্য । এই ৫৩৮ জনই ইলেকটোরাল ভোট দিয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করেন।যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের মেয়াদ ৪ বছর ।  প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্টিত হয় নভেম্বর মাসের ২-৮ তারিখের মধ্যবর্তী মঙ্গলবার । ডেমোক্রেটিক দলের প্রতীক গাধা এবং রিপাবলিকান দলের প্রতীক হাতি। হোয়াইট হাউজ হল যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দাপ্তরিক ও বাসখবন । হোয়াইট হাউজে বসবাসকারী প্রথম প্রেসিডেন্ট আমেরিকায় ২য় প্রেসিডেন্ট জন এডামস । হোয়াইট হাউজের স্থপতি জেমস হোবান । ওভাল অফিস হল হোয়াইট হাউজের ভিতরে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কার্যালয়।

Elections and parliament

The President of the United States was elected by the Electoral College. There are 538 electors in total. At least 270 electoral votes need to be voted to be president. Electoral votes in California are 55. The United States Parliament has two rooms. Upper house name Senate. The number of members of the Senate is 100, and the Lower House House of Representatives, whose members number 435 There are 535 members in the two rooms and 538 members with 3 reserved seats. These 538 people elect the president by electoral vote. The term of the president of the country is 4 years. Presidential elections are scheduled to be held on Tuesday between 2-8 November. Symbol of the Democratic Party donkey and the symbol of the Republican party elephants. The White House is the president and president of the US president. The first President of the White House, John Adams, 2nd President of America. White House architect James Hoban. The Oval Office is the US President’s Office inside the White House.

জর্জ ওয়াশিংটন

জর্জ ওয়াশিটেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম প্রেসিডেন্ট। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা যুদ্ধের সর্বাধিনায়ক ছিলেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি কখনো হোয়াইট হাউজে বাস করেন নি।

George Washington

George Washington is the first president of the United States He was the supreme commander of the United States War of Independence. He is the only US president who never lived in the White House.

আব্রাহাম লিংকন

আব্রাহাম লিংকন তিনি ছিলেন ১৬ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।  তিনি ১৮৬১-৬৫ পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন। ১৮৬৩ সালে তিনি দাস প্রথার অবসান ঘটান। দাসত্ব মোচন( Emancipation Proclamation) ঘোষনার মাধ্যম  দাসদের মুক্ত করেন । দাস প্রথাকে কেন্দ্র করে আমেরিকায় তখন গৃহযুদ্ধ শুরু হয়। গৃহযদ্ধের সময় যুক্তরাষ্ট্রে ‘Green Money’  নামক কাগুজে মুদ্রা চালু করেন তিনি ।১৮৬৩ সালের ২১ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট লিংকন ২ মিনিট স্থায়ী তার বিখ্যাত গের্টিসবার্গ ভাষন ( Gettysburg Address) দেন। তিনি বলেন, ‘Democracy is a government of the people, by the people, for the people’ (জনসাধারণের জন্য, জনসাধারণের দ্বারা পরিচালিত এবং জনসাধারণের সরকারই হলো গণতন্ত্র।) লিংকন তার দ্বিতীয় অভিষেক ভাষনে বলেন, ‘With malic towards none, with charity for all; with firmness in the right as God give us to see the right’. তার অমর উক্তি ‘ Ballot is stronger than Bullet’ (বুলেটের চাইতে ব্যালট শক্তিশালী।)। ১৮৬৫ সালের ১৫ এপ্রিল আততায়ীর গুলিতে নিহত হন। তিনি আততায়ীর গুলিতে নিহত প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

Abraham Lincoln

Abraham Lincoln was the 16th US President. He was in power till 1861-65. In 1863 he ended the slave system. Emancipation Proclamation releases the slaves of the medium of proclamation. The civil war started in America in the center of the slave system. In the United States, he introduced coins in ‘Green Money’ paper in the United States. On November 21, 183, President Lincoln gave his famous Gettysburg Address for two minutes lasting. He said, ‘Democracy is a government of the people, by the people, for the people’ (Public, publicly and publicly the government is democracy.) In his second debate, Lincoln said, ‘With malic towards none, with charity for all; with firmness in the right as God ‘ His immortal statement ‘Ballot is stronger than Bullet’ (Ballot stronger than bullets.) The assassin was shot dead on 15 April 1865. He was the first US president killed in assassination.

                                          ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট

ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট ছিলেন ৩২ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তিনি ১৯৩৩ হতে ১৯৪৫ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত র্দীঘ ১২ বছর ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত ছিলেন । তিনি টানা তিনবার প্রেসিডেন্ট হন। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাস তিনি একমাত্র পেসিডেন্ট যিনি ২ বারের অধিক প্রেসিডেন্ট হন । ১৯২৯ সালের ২৯ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ার বাজারে  ধসের মাধ্যমে (Black Tuesday) বিশ্বব্যাপী চরম অর্থনৈতিক মন্দা (Great Depression) শুরু হয়। এই মন্দা ১৯৪০ সাল পর্যন্ত স্থায়ী হয়। এই মন্দা মোকাবেলাতে তিনি ১৯৩৩ সালে নিউ ডিল ( New Deal) ব্যবস্থা প্রবর্তন করেন।

 

Franklin de Roosevelt

Franklin de Roosevelt was the 32nd US President. He was in power for 12 years from 1933 to 1945. He was elected three times in the presidential election. America’s history is the only president who has been president for more than two times. The Great Depression began on 29 October 1929 with the collapse of the US stock market (Black Tuesday). This recession lasts until the 1940. To combat this recession, he introduced the New Deal system in 1933.

Harry S. Truman

Harry S. Truman was the US President during World War II. In 1947, Truman published the ‘Truman Doctrine’ policy in the US Congress for its resistance to communism. He also ordered to put nuclear bombs in Japan in the second world war.

হ্যারি এস ট্টুম্যান

ট্টুম্যান দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধেও সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট  ছিলেন । ১৯৪৭ সালে কমিউনিজ প্রতিরোধের জন্য মার্কিন কংগ্রসে ট্টুম্যান ‘ট্টুম্যা ডকট্টিন’ ( Truman Doctrine) নীতি প্রকাশ করেন । এছাড়াও জাপানে ২য় বিশ্বে যুদ্ধে পারমানবিক বোমা ফেলার নিদের্শ দেন তিনি ।

                                              জন এফ কেনেডি

জন এফ কেনেডি ছিলেন ৩৫ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট ।তার শাসনামলের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কিউবার ক্ষেপনাস্ত্র সংকট ( Cuban Missile Crisis) ।তিনি তার অভিষেক ভাষনে বলেন “Ask now what your country can do for you, ask you can do for your country”।  তিনি আরো বলেন ” Let us never negotiate out of fear, But let us never fear to negotiate”.

John F. Kennedy

John F. Kennedy was 35th President of the United States. The Cuban Missile Crisis, a remarkable event in his regime, said in his debate, “Ask now what is your country can do for you, ask you can do for your country”. He also said “Let us never negotiate out of fear, but let us never fear to negotiate”.

রিচার্ড নিক্সন

রিচার্ড নিক্সন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট  ছিলেন । তিনি ছিলেন রিপাবলিক দলের প্রার্থী।প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় তিনি টেপ রেকর্ডারের মধ্যমে ডেমোক্রেটদের সদর দপ্তরে আড়ি পাতেন । ১৯৭২ সালে এই ঘটনার জন্য তিনি পদত্যাগ করেন । যা ওয়াটার গেট কেলেঙ্কারী হিসাবে খ্যাত। রিচার্ড নিক্সন পদত্যাগ করলে সাংবিধানিক ভাবে জেরাল্ড ফোর্ড ৩৮ তম প্রেসিডেন্ট  হিসাবে ক্ষমতা আসেন । তিনি একমাত্র মার্কিন প্রেসিডেন্ট  যিনি নির্বাচনের মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট হননি।

Richard Nixon

Richard Nixon was the US president during the Liberation War of Bangladesh. He was a Republican candidate. During the presidential election, he tipped the Democrats to the headquarters of the tape recorder. In 1972 he resigned for the incident. Which is known as the Water Gate Scandal Gerald Ford came to power as the 38th President when Richard Nixon resigned. He is the only US president who has not been elected president.

রোনান্ড রিগ্যান
রোলাল্ড রিগ্যান  ছিলেন একজন অভিনেতা । ১৯৮৩ সালে তিনি ভূমি ও মহাকাশের পরমানু ক্ষেপনাস্ত্র আক্রমন প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার পরিকল্পনা হাতে নেন , যা SDI( Strategic Defense Initiative) নামে পরিচিত সমালোচকেরা একে নক্ষত্র যুদ্ধে (Star War) এর পরিকল্পনা হিসেবেও অভিহিত করেন । ১৯৮৩ সালে তিনি গ্রানাডায় সামরিক আগ্রাসন চালান।

Ronald Reagan

Ronald Reagan was an actor. In 1983, he devised a plan to create ground and space nuclear missile defense systems, which, critically known as SDI (Strategic Defense Initiative), also referred to it as a plan of Star Wars. In 1983, he used military aggression in Granada.

বিল ক্লিনটন

বিল ক্লিনটন আমেরিকার ৪২ তম প্রেসিডেন্ট। ২০ মার্চ ২০০০ তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন এক দিনের সফর ঢাকা এসে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট থাকা অবস্থায় তিনি বাংলাদেশ সফরে এসেছিলেন । আমেরিকায় সাবেক এই প্রেসিডেন্ট তার সৎ পিতার পবদি ব্যবহার করছেন ।

Bill Clinton

Bill Clinton is the 42nd President of America. On March 20, 2000, then President Bill Clinton came to Dhaka on a one-day visit to Bangladesh while he was President of the United States. In America, the former president is using his honest father’s position.

বারাক ওবামা

বারাক ওবামা কেনীয় বংশোদ্ভূত  প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ  মার্কিন প্রেসিডেন্ট । ২০০৯ সালে তিনি ৪৪তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইলিয়ন সিনেটর ছিলেন । ২০০৯ সালে কায়রোর আল আযহার বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি মুসলিম বিশ্বের প্রতি শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন । ২০০৯ সালে তিনি শান্তিতে নোবেল পুরষ্কার লাভ করেন । ব্যাংকিং খাতে ঝুকিপূর্ন বিনিয়োগের কারনে যুক্তরাষ্টের চতুর্থ বিনিয়োগে  ব্যাংক (Lehman Brothers) লেমন ব্রাদাস বন্ধ হয়ে যাওয়ার মধ্যদিয়ে নতুন করে বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার সূত্রপাত।

Barack Obama

Barack Obama is the first Black American president of the Kenyan race. In 2009, he was elected the 44th President of the United States. Earlier he was the Illinois Senator of the United States. In the 2009, Al-Azhar University in Cairo, he conveyed his greetings to the Muslim world. In 2009, he received the Nobel Peace Prize. New World Economic Recession Begins With Leamman Brothers Lehman Brothers Closing In The Fourth Investment Of The United States, due to the risky investment in the banking sector.

মার্টিন লুথার কিং

যুক্তরাষ্ট্রের নিগ্রোদের অধিকার আদায় আন্দোলনের অহিংসবাদী নেতা মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র । তিনি যুক্তরাষ্ট্রের অধিবাসী ছিলেন ।১৯৬৩ সালে ওয়াশিংটনের লংমার্চে  ‘I have a dream that oneday this nation will rise up and live out the true meaning of its creed: ” we hold this truths to be self-evident: that all men are created equal”.   শীর্ষক বিখ্যাত ভাষনটি দেন। যুক্তরাষ্ট্রের টেনিসি ( Tennessee ) অঙ্গরাজ্যের মেমফিস ( Memphis ) শহরে ১৯৬৮ সালে ৪ এপ্রিল আততায়ীর গুলিতে তিনি নিহত হন।

Martin Luther King

Martin Luther King Jr., the non-violent leader of the United States’s Liberation Rights Movement He was a resident of the United States. In 1963, at Washington’s Long March, ‘I have a dream that one day this nation will rise up and live out the true meaning of its creed: “we hold this truths to be self-evident: that all men are equal”. The headline gave the famous speech. He was shot dead by assassins on April 4, 1968 in the city of Memphis in the US state of Tennessee.

বিশ্ব বানিজ্য কেন্দ্র

বিশ্ববানিজ্য কেন্দ্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইর্য়কের ম্যানহাটন এলাকায় অবস্থিত ৭টি ভবনের একটি স্থাপনা । স্থানটি সব চেয়ে উচু দুটি টাওয়ার ১১০ তলা বিশিষ্ট ছিলো । উচু দুটি টাওয়ারের নামমুনাসের এটি টুইন টাওয়ার নামে খ্যাত ছিলো । ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর আল-কায়েদা সন্ত্রাসীরদের বিমান হামলায় বিশ্ব বানিজ্য কেন্দ্র  ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়।  এই ঘটনায় Nine-Eleven(9/11)  নামে পরিচিত । টুইন টাওয়ারের ধ্বংসপ্রাপ্ত অঞ্চলটি এখন গ্রাউন্ড জিরো।(Zero Ground) নামে পরিচিত। ৯/১১ ঘটনার পর মার্কিন যুক্তরাষ্টের  Department of Homeland Security) প্রতিষ্টা করে। ধ্বংসপ্রাপ্ত বিশ্ব বানিজ্য কেন্দ্রের গলিত লৌহ হতে নির্মিত হয় ‘USS New York’ নামে একটি জাহাজ।

World Trade Center An establishment of seven buildings in New York’s Manhattan area of ​​the United States. The place was one of the tallest towers of 110 stories. It was named after Twin Towers in the name of the two tallest tower. The World Trade Center was destroyed on September 11, 2001 by the al-Qaeda terrorists’ air strike. This incident is known as Nine-Eleven (9/11). The ruined area of ​​Twin Tower is now known as the Zero Ground. After 9/11 the United States Department of Homeland Security) A ship named ‘USS New York’, built from the muddy iron of the ruined world trade center.

গুয়েন্তনামো বে বন্দিশালা

যুক্তরাষ্ট্র ও কিউবার মধ্যকার বিরোধপূর্ন  ভূখন্ডটির নাম গুয়ানতানামো বে । এই বন্দিশালাটি কিউবাতে অবস্থিত । যুক্তরাষ্ট্র তার সামরিক কয়েদখানা হিসাবে এটি ব্যবহার করে। ১৯০৩ সালে কিউবা আমেরিকা চুক্তির মাধ্যমে গুয়েন্তনামো বে স্থানটি লিজ নেয়। কিন্তু বর্তমান কিউবার সরকার দাবি করে ভীতি প্রদর্শনের মাধ্যমে চুক্তিটি করা হয়েছিল যা আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থী ।

(Guantanamo Bay Detention Camp)

The name of the conflict between the United States and Cuba is Guantanamo Bay. This prison is located in Cuba. The United States uses it as its military prison. In 1903, Guantanamo Bay was leased by the Cuba Americas Treaty. But the current Cuban government claimed that the agreement was made through the scandal which is contrary to international law.

আবু গারিব

আবু গারিব একটি কারাগার বা জেল খানা ।এটি ইরাকে অবস্থিত  Operation Iraqi Freedom এর সময় এই কারাগারে মার্কিন সৈন্যরা ইরাকি মুসলিম কয়েদিদের অমানবিক নির্যাতন করে।

Abu Gharib

Abu Gharib is a prisoner or jail. It is in Iraq, during Operation Iraqi Freedom that American soldiers inhumanly torture Iraqi Muslim prisoners.

পেন্টাগন

পেন্টাগন মার্কিন প্রতিক্ষার বিভাগের সদর দপ্তর।এটি যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিলিয়া অঙ্গরাজ্যের আরলিংটনে অবস্থিত । এটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় অফিস ভবন ।

Pentagon

The Pentagon is headquartered in the US Department of Recovery. It is located in Arlington, Virginia, Virginia State. It is the largest office building in the world.

স্ট্যাচু অব লির্বাটি

১৮৮৬ সালে ফ্রান্স যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতার ১০০ বছর পূর্তিতে স্ট্যাচু অব লিবাটি উপহার দেয় । এর স্থপতি ফ্রান্সের ফ্রেডেরিক অগাস্ট বার্থোল্ডি । এটিকে যুক্তরাষ্টের নিউইয়ার্কের লির্বাটি দ্বীপে স্থাপন করা হয় ।যুক্তরাষ্টে সরকার স্ট্যাচু অব লির্বাটিকে ১৯২৮ সালে জাতীয় সৌধ হিসাবে স্বীকৃতি দেয়।

Statue of Liberty

In 1886, France presented the Statue of Liberty in 100 years of independence of the United States. The architect of France’s Frederick August Bartholny. It is also set up in the United States of New York on the island of Liberty. The Government recognized the Statue of Liberty as National Monument in 1928.

*২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি ৪৫ তম প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নেন ডোনাল্ড ট্টারুপ । তার জন্ম নিউইয়র্কের কু্ইন্সে।

*নিউইয়র্কের বিখ্যাত সড়ক হলো ওয়ালা স্ট্রিট। এখানে নিউইয়র্ক স্টক একচেঞ্জ তথা নিউইয়র্কের শেয়ার বাজার অবস্থিত

* নিউইয়র্কের আরেকটি বিখ্যাত সড়েকের নাম ব্রডওেয়ে।

* যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার সীমানায় নায়াগ্রা নদীর উপর নির্মিত আন্তর্জাতিক সেতুটির নাম শান্তি সেতু ।

* ওয়াশিংটনে অবস্থিত বিল গেইটসের বাড়ির নাম ইকোলজি হাউজ ।

* পৃথিবীর অন্যতম বৃহত্তম দেউলিয়া জ্বালানি কোম্পানি ‘এনরন’  হলো একটি মার্কিন কোম্পানি।

*ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের বড় ধরনের ভূমিকম্পকে বলে বিগ ওয়ান।

*মৃত্যু উপত্যকা বা ডেডভেলী এর অবস্থান ক্যালিফোর্নিয়াতে ।
PL-480
পিএল- ৪৮০ এরঅর্থ হচ্ছে   Public Law-480  এই আইনটি পাস হয় ১৯৫৪ সালে । এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি আইন যার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শর্তাধীন বিদেশী রাষ্ট্রকে খাদ্য সাহায্য দেয়। বাংলাদেশ ও এই আইনের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র হতে সাহায্য পেয়ে থাকে । এই আইনকে প্রকৃতপক্ষে যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের  স্বার্থ উদ্ধারের  জন্য ব্যবহার করে । ১৯৭৪ সালে যুক্তরাষ্টের ইচ্ছার বিরুদ্ধে পাট চুক্তি প্রায় সম্পন্ন করলে যুক্তরাষ্ট্র খাদ্য সাহায্য বন্ধ করে দেয়। এতে বাংলাদেশ দুর্ভিক্ষে নিপতিত হয়।

  • সেসাপেক ব্রিজ যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যে অবস্থিত ।
  • ডিজনিল্যান্ড যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালফোর্নিয়া রাজ্যে অবস্থিত একটি বিখ্যাত পার্ক।
  •  ওয়েস্ট পয়েন্ট নিউইয়র্কে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক একাডেমি ।
  • লাইব্রেরি অব কংগ্রেস ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত লাইব্রেরি অফ কংগ্রেস বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম লাইব্রেরী।
  • কলম্বাস আমেরিকা আবিষ্কার করেন ১৪৯২ সালে। তিনি ইতালির নাগরিক ।
  • আমেরিকা মহাদেশের নাম করন করেন আমেরিগো ভেশপুচি (১৪৯৭)।
  • যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশযান উৎক্ষেপন কেন্দ্র NASA – National Aeronautics and Space Administration.  এটি ১৯৫৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এর সদর দপ্তর ওয়াশিংটন ডিসিতে।ক্ষেপনাস্ত্র উৎক্ষেপন কেন্দ্র কেপ কেনেডিতে।
  • লস অ্যাঞ্জেলস বিখ্যাত চলচিত্র শিল্পের জন্য । বিখ্যাত হলিউড এখানে অবস্থিত ।
  • যুক্তরাষ্টের মহিলারা ভোটাধিকার পায় ১৯২০ সালে ।
  • জন এফ কেনেন্ডি পুলিৎজার পুরস্কার লাভ করেন ‘ প্রোফাইল ইন ব্যারেজ’ বইয়ের জন্য।
  • যুক্তরাষ্টের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদবী Secretary of State।
  • যুক্তরাষ্টের অর্থমন্ত্রীর পদবী   Treasury Secretary।
  • যুক্তরাষ্টের সংবিধান রচনা করেন জেমস মেডিসন ।
  • আমেরিকার সর্বশেষ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ছিল ৫৭তম।
  • যুক্তরাষ্টের ইতিহাসে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন বারাক ওবামা ।
  • ‘ম্যান ফ্রম প্লেইনস’ নামে প্রমান্য চিত্রে অভিনয় করেন জিমি কার্টার। এটি তার জীবনী নিয়ে তৈরী ।
  • ওয়ান্ড ট্রেড সেন্টারের স্থানে বিশ্বের সর্বোচ্চ যে ভবন নির্মানের পরিকল্পনা  তার নাম ‘ফ্রিডম হাউস’।