দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ

সময়কাল : ১ সেপ্টেম্বর, ১৯৩৯ – ২ সেপ্টেম্বর ১৯৪৫।
যুদ্ধেও প্রেক্ষাপট : ১৯৩৯ সালের ১ লা সেপ্টেম্বর জার্মানি পোল্যান্ড আক্রমণ করলে ২য় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়।
অক্ষশক্তি : জাপান, জার্মানি ও ইতালি।
মিত্রশক্তি : ব্রিটেন, ফ্রান্স, সাভিয়েত ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র, চীন, পোল্যান্ড, কানাডা, বেলজিয়াম।
অক্ষশক্তির নেতাগণ : এডলফ হিটলার (জার্মান চ্যান্সেলর), বেনিতো মুসোলিনি ( ইতালির প্রেসিডেন্ট), হিরোহিতো (জাপানের ট)।
মিত্রশক্তির নেতাগণ : যোসেফ স্ট্যানিলন (সোভিয়েত প্রেসিডেন্ট), উইনস্টোন চার্চিল (যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী), ফ্রাঙ্কলিন ডি রুজভেল্ট (মার্কিন প্রেসিডেন্ট), হ্যারি এস ট্রুম্যান (মার্কিন প্রেসিডেন্ট)।
‘ব্লিটসক্রিগ’ বা ‘বিদ্যুৎগতির যুদ্ধ’ মতবাদেও প্রতিফলিত হয় ফ্যাসিস্ট জার্মানির আগ্রাসন নীতি। এ ধারণা অনুযায়ী, বিজয় লাভ বরা উচিত অল্পসময়ের মধ্যে – শত্রু কতৃর্ক তার সামরিক বাহিনী এবং এবং সামরিক অর্থনৈতিক ক্ষমতার পূর্ণব্যবহারের আগেই। এই চমকপ্রদ নীতির জন্যই জার্মানি বিজয় লাভ করে ২য় বিশ্বযুদ্ধের প্রথম নয় মাসেই নিজেদের অবস্থান সুদৃঢ় করে।
১০ জুন, ১৯৪০ সালে অক্ষশক্তি (জার্মানি ও ইতালিয়ান বাহিনী কতৃর্ক ) ব্রিটিশ অধিভুক্ত উত্তর আফ্রিকা (মিশর) আক্রমণ করেন।
১৯৪১ সালের ৭ ডিসেম্বর জাপান যুক্তরাষ্ট্রের পার্ল হারবার আক্রমণ করেন। এর ফলে যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি ২য় বিশ্বযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে।
১৯৪৪ সালের ৬ জুন ইউরোপের মূল ভূখন্ড র্জামান দখলমুক্ত করার জন্য মিত্রবাহিনীর বিপুল সংখ্যক সেনা ফ্যান্সের নরমান্ডিতে অবতরণ করে। এই দিনটি D-Day হিসাবে পালিত হয়।
১৯৪৫ সালের ৮ মে জার্মান নাৎসী বাহিনী বাহিনী মিত্রবাহিনীর কাছে নিঃশর্ত আত্নসমর্পণ করে। এই দিনটি V-E Day (Victory over Europe Day হিসাবে পালন করা হয়।
১৯৪৫ সালের ৬ আগস্ট জাপানের হিরোশিমায় ‘লিটল বয়’ এবং ৯ আগস্ট জাপানের নাগাসাকিতে ‘ফ্যাটম্যান’ নামে যুক্তরাষ্ট্র দুটি পারমানবিক বোমা নিক্ষেপ করে। যুক্তরাষ্ট্রের ততকালীন প্রেসিডেন্ট হেনরি ট্রুম্যান এই বোমা নিক্ষেপের নির্দেশ দেন।১৯৪৫ সালে ১৫ আগস্ট জাপান আত্নসমর্পণের ঘোষনা দেয়।
১৯৪৫ সালে ২ সেপ্টেম্বর জাপানের আত্নসমর্পণের মধ্য দিয়ে ২য় বিশ্ব যুদ্ধের শেষ হয়।

Nuremberg Trials (নুরেমবার্গ বিচার)

নুরেমবার্গ বিচার ১৯৪৫-৪৬ সালে জার্মানির নুরেমবার্গে অনুষ্ঠিত হওয়া কিছু বিচার প্রক্রিয়ার নাম। তখন ইন্টারন্যাশনাল মিলিটারি ট্রাইবুনাল নাৎসি বাহিনীর নেতাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে এবং তাদের বিচার করে।

The Diary of a Young Girl

আনা ফ্রাঙ্ক রচিত ওলন্দাজ ভাষায় লিখিত একটি বিখ্যাত গ্রন্থ The Diary of a Young Girl. জার্মান বাহিনী নেদারল্যান্ডে অভিযানের সময় লেখিকা ও তার পরিবার নেদারল্যান্ডের একটি বাড়িতে লুকিয়ে ছিলেন। বইটিতে তিনি তার লুকিয়ে থাকার সেই সব দিনগুলো বর্ণনা করেন।
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় মরূভূমিতে যুদ্ধ করে ‘ডেজার্ট ব্যাট’ উপাধি পায় জেনারেল মন্টেগোমারী।
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইরান জার্মানিকে সমর্থন দেয় আর বাংলাদেশ সমর্থন করে ব্রিটেন করে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে কোরিয়া, তাইওয়ান জাপানের অধীনে ছিল।