দাস বংশ

কুতুবউদ্দিন আইবেক ছিলেন মোহাম্মদ ঘুরীর একজন ক্রীতাদাস। পরবর্তীতে তিনি কুতুবউদ্দিন আইবেকের সেনাপতি হন। তিনি মোহাম্মদ ঘুরীর অনুমতিক্রমে দিল্লিতে ভারত বিজয়ের পরে স্থায়ীভাবে মুসলিম সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠা করেন। এজন্য তাকে দাস বংশের প্রতিষ্ঠাতা বলা হয়। আর তিনি তুর্কিস্থানের অধিবাসী হওয়ায় কুতুবউদ্দিন আইবেক ও তাঁর উত্তরাধিকারীদের শাসনামলকে প্রাথমিক যুগের তুর্কি শাসন বলেও অভিহিত করা হয়।দানশীলতার জন্য তাকে ‘লাখবক্স’ বলা হত। দিল্লীর কুতুবমিনার নির্মান কাজ শুরু হয় তার শাসনামলে। তিনি মিনারের কাজ শেষ করে যেতে পারেননি।দিল্লীর বিখ্যাত সাধক কুতুবুদ্দিন বখতিয়ার কাকীর নামানুসারে এই মিনারের নাম রাখা হয়।

ইলতুতমিশ হলেন কুতুবউদ্দিন আইবেকের জামাতা। তিনি ছিলেন প্রাথমিক যুগে দিল্লির শ্রেষ্ঠ সুলতান।দিল্লির সালাতানাতের প্রকৃত প্রতিষ্ঠাতা তিনি। ভারতের মুসলমানদের মধ্যে প্রথম তিনি মুদ্রার প্রচলন করেন।তিনি কুতুবমিনার নির্মান কাজ শেষ করেন।ইলতুতমিশের কন্যা রাজিয়া সুলতানা ছিলেন দিল্লির সিংহাসনে আহোরনকারী প্রথম মুসলিম নারী। সুলতান নাছির উদ্দিন মাহমুদ সরল ও অনাড়ম্ভর জীবন-যাপনের জন্য তিনি ‘ জিন্দাপীর’ নামে পরিচিত। তিনি কুরআন নকল ও টুপি সেলাই করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।সুলতান গিয়াসউদ্দিন বিদ্যোৎসাহী ও গুনীজনের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। ‘ ভারতের তোতা পাখি হিসেবে খ্যাত আমির খসরু ছিলেন আর সভাকবি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *